কলকাতা নাইট রাইডার্স বনাম লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টসের ম্যাচে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে ১ রানে পরাজিত করেছে লক্ষ্ণৌ সুপার জায়ান্টস। সেই সাতৈ গুজরাত-চেন্নাইয়ের পর ৩য় দল হিসেবে প্লে-অফ নিশ্চিত করল লক্ষ্ণৌ।

জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালোই করেছে কলকাতা। রয়-ভেঙ্কটেশ জুটিতে ৬১ রানের পার্টনারশিপ আসে। ৬ষ্ঠ ওভারে ভেঙ্কটেশ (২৪) ফিরেন। এরপর নীতিশকে নিয়ে রয় জুটি গড়লেও স্থায়ী হয়নি এই জুটি। ৯ম ওভারে নীতিশ (৮) ফিরেন।

পরবর্তী ওভারে একই পথে হাঁটেন রয় (৪৫)। ইনিংস বড় হয়নি গুরবাজেরও। ফিরেছেন ১০ রানে। এরপর কেবলমাত্র রিংকুর ব্যাট হেসেছে। ব্যাট হাতে একাই লড়ে গেছেন রিংকু। ৩৩ বলে ৬৭ রানের ইনিংস খেলেন রিংকু।

২০ ওভারের আগে আরও ৩ উইকেট হারায় কলকাতা। রাসেল (৭), শার্দুল (৩) ও নারাইন (১) ফিরেন। ২০ ওভার শেষে কলকাতার ইনিংস থামে ১৭৫ রানে। ১ রানে জয় পায় লক্ষ্ণৌ। দলের হয়ে ২টি করে উইকেট নেন বিষ্ণুই এবং ইয়াশ। ১টি করে উইকেট নেন ক্রুনাল এবং গৌতম।

এর আগে টসে জিতে লক্ষ্ণৌকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় কলকাতা। ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি লক্ষ্ণৌর। খুব দ্রুত কর্ণের (৩) উইকেট হারায় লক্ষ্ণৌ। এরপর ম্যানকাডকে নিয়ে জুটি গড়েন ডি কক। এই জুটিতে দলীয় রান অর্ধশতকের ঘর পেরোয়।

৭ম ওভারে ভৈভবের জোড়া আঘাতে ম্যানকাড (২৬) এবং স্টয়নিস (০) ফিরেন। এরপর ক্রুনালকে নিয়ে কক জুটি গড়লেও বেশিদূর আগায়নি এই জুটি। ১০ম ওভারে ক্রুনাল (৯) ফিরেন। পরবর্তী ওভারে কক (২৮) ও ফিরেন।

এরপর পুরানকে নিয়ে জুটি গড়েন আয়ুশ। এই জুটিতে দলীয় স্কোর শতকের ঘর পেরিয়ে যায়। ১৮তম ওভারে আয়ুশ (২৫) ফিরেন। পরবর্তী ওভারে ঠাকুরের জোড়া আঘাতে ফিরেন পুরান (৬৮) এবং বিষ্ণুই (২)।

নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে লক্ষ্ণৌর ইনিংস থামে ১৭৬ রানে। দলের হয়ে ২টি করে উইকেট নেন ঠাকুর, নারায়ণ এবং ভৈভব। ১টি উইকেট নেন চক্রবর্তী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here